Skin Care: রূপচর্চায় বেসনের ৫ টি অপরিহার্য ব্যবহার, ত্বক হবে ঝলমলে উজ্জ্বল

বর্তমানে বাজারে রূপচর্চার বিভিন্ন আইটেম ও ফেসওয়াশ-এর ধুম থাকলেও আগেকার দিনে এগুলোর অ্যাভেবিলিটি ছিল না। তাই বলে কি সে যুগের মানুষেরা রূপচর্চা করতেন না? তখনকার দিনে মানুষেরা দুধ,মধু,হলুদ প্রভৃতি প্রাকৃতিক উপাদানের ওপরে রূপচর্চার ক্ষেত্রে নির্ভর করতেন। তবে ত্বকের যত্নে রান্নাঘরের যে উপাদানটি যুগ যুগ ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে সেটি হল বেসন।

আধুনিকা থেকে দিদিমা প্রত্যেকেরই ত্বক চর্চার লিস্টে সবথেকে উপরে যে উপাদানটি রয়েছে সেটি হলো এই বেসন। এটি শুধুমাত্র আপনার ত্বকের ময়লা দূর করে আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে তাই নয় এর পাশাপাশি আপনার ত্বকের মরা কোষ দূর করে,আপনার ত্বকের বলিরেখা কে দূর করে,সান ট্যান দূর করে,আপনাকে উপহার দেয় এক স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বকের।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ত্বক চর্চায় বেসনের পাঁচ রকমের ব্যবহার-

1) আপনার ত্বকের কালো ভাব দূর করতে স্নানের আগে বেসনের মধ্যে টকদই মিশিয়ে মিশ্রণটি কে ভালো মতো করে ত্বকে লাগিয়ে নিন। টক দইয়ের মধ্যে থাকা প্রাকৃতিক উপাদান আপনার ত্বকের কালো দাগ দূর করে দেয়।

2) বেসন ব্যবহার করে বানিয়ে ফেলতে পারেন এক চমৎকার স্ক্রাবার। কফি পাউডার, চালের গুঁড়ো এবং বেসনের সাথে পরিমাণমতো কাঁচা দুধ নিয়ে সেই মিশ্রনটিকে ভালোমতো মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে স্ক্রাব করে তুলে দিন সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার এই স্ক্রাবটি ব্যবহার করতে পারেন।

3) স্নান করবার সময় আপনার মুখে ঘাড়ে পিঠে হাতে ভালো মতো করে বেসন,অ্যালোভেরা জেল এবং গ্লিসারিনের মিশ্রন তৈরী করে সেটিকে ঘষে ঘষে লাগান এটি আপনার ত্বক পরিষ্কার করবে পাশাপাশি আপনার ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করবে।

4) বেসনের মধ্যে প্রয়োজনমতো গোলাপজল মিশিয়ে মিশ্রণটি স্নানের পূর্বে মুখে ভালোমতো মেখে নিয়ে পরে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

5) প্রত্যহ ফেসওয়াশ হিসাবে বেসনের মধ্যে কিছুটা কাঁচা দুধ মিশিয়ে সেই মিশ্রনটিকে ভালোমতো মুখে ঘষে ঘষে লাগিয়ে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিলে আপনার ত্বক কিছুদিন পর থেকেই হয়ে যাবে স্পটলেস এন্ড ক্লিয়ার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *