সামান্য অসাবধানতা, ভাইব্রেটর থেকেই গোটা বাড়িতে আগুন ধরে গেল মহিলার

যৌন তৃপ্তির জন্য অনেকেই সেক্স টয় ব্যবহার করেন। কিন্তু, এর ব্যবহার সম্পর্কে অসাবধানতার ফল কিন্তু মারাত্মক হতে পারে। আর তা শুধু যৌন ক্রীড়াকলাপের জন্য ব্যবহারের সময় নয়, চার্জিংয়ের সময় অসাবধান হলেও, তা থেকে বড় বিপদ ঘটে যেতে পারে। বস্তুত, অতি সম্প্রতি এক মার্কিন মহিলার গোটা অ্যাপার্টমেন্ট পুড়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল তার ভাইব্রেটর থেকে। 

সোশ্য়াল মিডিয়ায় তিনি পুরো ঘটনাটির বিবরণ দিয়েছেন। সেই লেখার শিরোনাম, ‘আমি ভাইব্রেটর দিয়ে প্রায় নিজেকে মেরেই ফেলছিলাম’। তিনি জানিয়েছেন, ওই অ্যাপার্টমেন্টে তিনি একাই থাকেন। মাঝে মাঝেই যৌন তৃপ্তি পেতে তিনি ভাইব্রেটর ব্যবহার করে থাকেন। সম্প্রতি তিনি ৭০ ডলার খরচা করে একটি অনামী ব্র্যান্ডের ভাইব্রেটর কিনেছিলেন। সেটিই ব্যবহার করছিলেন। সপ্তাহখানেক আগে এক লাইব্রেরিতে তিনি সেটি ব্যবহার করেছিলেন। তারপর এনে বাড়িতে বিছানাতেই ফেলে রেখেছিলেন।

ঘটনার দিন রাতে তার ভাইব্রেটর ব্যবহার করার ইচ্ছে জাগে। দেখেছিলেন তাতে চার্জ নেই। বিছানাতে রেখেই সেটিতে চার্জ দিতে বসিয়েছিলেন ওই মার্কিন মহিলা। কিন্তু, সমস্যা হল, ওই দিন তিনি বেশ কিছুটা মদ্যপানও করেছিলেন। বেশ মাতাল ছিলেন। ফলে, ভাইব্রেটরটি চার্জিং লাগিয়ে ভুলেই গিয়েছিলেন। কিছুক্ষণ পর ভাইব্রেটরটির দিকে আর মনোযোগই ছিল না তার। 

এদিকে ফুলচার্জ হওয়ার পরও চার্জ হতে থাকায় কমদামী ভাইব্রেটরটি অত্যন্ত গরম হয়ে উঠেছিল। কিছু পরে পুরো অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পোড়া প্লাস্টিকের দুর্গন্ধ বের হতে শুরু করেছিল। সেই সময় তার হুশ ফিরেছিল। দেখেছিলেন, ভাইব্রেটরটি থেকে বিছানায় আগুন ধরে গিয়েছে। পরে দমকল বিভাগ এসে সেই আগুন নেভায়। শেষ পর্যন্ত পুরো অ্যাপার্টমেন্টে আগুন ধরেনি। তবে ঘটনাটা খুবই লজ্জাজনক এবং ভীতিজনক বলেই জানিয়েছেন ওই মহিলা। তার ঘটনা থেকে সকলকে শিক্ষা নিয়ে সকলকে ভাইব্রেটর সবসময় চার্জ থেকে সবসময় সরিয়ে রাখার উপদেশ দিয়েছেন। 

তার সোশ্য়াল মিডিয়া পোস্টটি দারুণ জনপ্রিয় হয়েছে। অনেকেই বলেছেন, সেক্স টয় চার্জে দিয়ে আনপ্লাগ না করে ভুলে গেলে এই ধরনের যা কিছু দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। কেউ কেউ মজা করে বলেছেন, ভাইব্রেটর তৈরিকারী সংস্থাটির কাস্টোমার কেয়ারে যোগাযোগ করা উচিত ওই মহিলার। অনেকেই বলেছেন, দোষ ভাইব্রেটরটিরই। দামী ব্যান্ডের হলে এমনটা হত না। তবে একাধিক মহিলা জানিয়েছেন, কখনও না কখনও তাদেরও একইরকম অভিজ্ঞতা হয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *