আগে সেক্স তারপর কাজ, বলিউডে কাজ পেতে মেটাতে হয় পরিচালকের যৌন চাহিদা

কাস্টিং কাউচ (Casting Couch), নেপোটিজম বিতর্ক প্রকৃত অর্থেই বলিউডের (Bollywood) কাছে প্রদীপের তলায় অন্ধকারস্বরূপ। এই অন্ধকারের গভীরতা বাইরে থেকে মাপা যায় না। বলিউডের গ্ল্যামারে তা লাইমলাইটের আড়ালেই চাপা পড়ে যায়। আগে এ সম্পর্কে মুখ খুলতে ভয় পেতেন তারকারা (Star)। তবে এখন অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে দ্বিধা করেন না বলিউড সেলিব্রিটিরা‌ (Celebrity)। বলিউডের একাধিক প্রথম সারির অভিনেতা এবং অভিনেত্রী বলিউডে কাস্টিং কাউচ নিয়ে নিজেদের ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা সর্বসমক্ষে তুলে ধরেছেন। কী অভিযোগ এনেছেন তারা? জেনে নিন।

নার্গিস ফাকরি (Nargis Fakri) : বলিউডের এই সুন্দরী জানিয়েছেন কাজের সুযোগ পাওয়ার জন্য তার কাছে বহুবার পরিচালকদের তরফ থেকে কুপ্রস্তাব এসেছে। তবে তিনি সেই প্রস্তাবে রাজি হননি। কাজ পাওয়ার জন্য পরিচালকদের যৌনচাহিদা মেটাতে রাজি হননি বলেই বলিউডের বহু প্রজেক্ট তার হাতছাড়া হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন অভিনেত্রী। যে কারণে একসময় মানসিকভাবে ভেঙেও পড়েন তিনি। তবুও নিজের নীতিবোধ বিসর্জন দেননি।

অঙ্কিতা লোখান্ডে (Ankita Lokhande) : তিনি বলিউডের পরিচিত মুখ নন ঠিকই। তবে টেলিভিশনের পর্দার অত্যন্ত পরিচিত মুখ তিনি। দীর্ঘ বেশ কয়েক বছর ধরে তিনি এই ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে জড়িত। ছবিতে অভিনয়ের জন্য ডাক পেয়েছিলেন দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি থেকে। তবে কাজ পাওয়ার জন্য তাকে পরিচালকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়ানোর কথা বলা হয়েছিল। শোনা মাত্র তা নাকচ করে দিয়ে ফিরে আসেন অঙ্কিতা।

রাধিকা আপ্তে (Radhika Apte) : ইদানিং রাধিকাকে নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে নেট মাধ্যম। একটি ছবিতে তার নগ্ন দৃশ্য নিয়ে কটাক্ষ ছুঁড়ছেন নেটিজেনরা। তবে জানেন কি রাধিকাও একসময় কাস্টিং কাউচের মুখে পড়েছিলেন। ছবিতে রোল পাওয়ার জন্য তাকেও পরিচালককে খুশি করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তবে রাধিকা সেই প্রস্তাব মানেননি। নিজের প্রতিভার উপর তার আস্থা ছিল। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, তিনি বলিউডে এমন অনেকেই চেনেন যারা রোল পাওয়ার জন্য কাস্টিং কাউচের শিকার।

কল্কি কোয়েচলিন (Kalki Koechlin) : বলিউডের এই অভিনেত্রীও কাস্টিং কাউচের বিরুদ্ধে মুখ খুলে রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন। জানিয়েছিলেন কিভাবে তাকে কুপ্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল এবং তিনি নিজের বুদ্ধির জেরে সেই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন। পরে নিজের দক্ষতার নিজেকে বলিউডে প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছেন কল্কি। তার জন্য নিজের নীতিবোধ বিসর্জন দিতে হয়নি তাকে।

আয়ুষ্মান খুরানা (Ayushmann Khurrana) : হ্যাঁ, এই তালিকায় অভিনেতাদের নামও রয়েছে। কাজ দেওয়ার পরিবর্তে পরিচালকের সঙ্গে একই বিছানায় যাওয়ার প্রস্তাব পেয়েছেন আয়ুষ্মানও। সেই অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করতে গিয়ে অভিনেতা জানিয়েছিলেন, “আমি টিভি অ্যাংকর ছিলাম। বলিউডের এক কাস্টিং ডিরেক্টর তাঁর সঙ্গে যৌন মিলনে লিপ্ত হতে বলেন। আমি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলাম, যদি আমি গে হতাম তাহলেও হয়তো ভেবে দেখতাম, কিন্তু আমি স্ট্রেইট। ফলে আমার পক্ষে রোল পাওয়ার জন্য তাঁর সঙ্গে বিছানায় যাওয়া সম্ভব না।”

রণবীর সিং (Ranveer Singh) : বলিউডে কেরিয়ার গড়ে তোলার প্রথম দিনগুলি রণবীরের পক্ষে খুব একটা সহজ ছিল না। সেই সময়ে অনেক স্ট্রাগল করতে হয়েছে তাকে। তখনই কাস্টিং কাউচের সম্মুখীন হতে হয়েছিল রণবীরকে। একবার একটি সাক্ষাৎকারে তিনি নিজেই সেই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছিলেন। তবে রণবীর এও জানিয়েছিলেন, একজন অভিনেতা কিভাবে এমন পরিস্থিতি সামাল দেবেন তার উপর নির্ভর করে অনেক কিছু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *