১০ বছরের ছোটো স্বামীকে ডিভোর্স দেওয়ার পথে দেশি গার্ল প্রিয়াঙ্কা? তুঙ্গে জল্পনা

শীতকাল মানেই বিয়ের ধুম! বলিউডে একের পর এক তারকাখচিত ওয়েডিং নিউজ আসতেই চলেছে হামেশাই। তবে এরই মাঝে বিষাদের সুর বি-টাউনে। মার্কিন মুলুকে তিন বছর সুখের সংসার করার পর অবশেষে বিচ্ছেদ হতে চলেছে বলিউডের দেশি গার্ল ও ন্যাশনাল জিজুর! আজ্ঞে হ্যাঁ অভিনেত্রীর একটি ছোট্ট ইঙ্গিতেই মিলল এমনই সূত্র!

2018 সালের ডিসেম্বরে হিন্দু ও খ্রিষ্টীয় ধর্ম মতে রাজস্থানের যোধপুরে এক পাঁচতারা হোটেলে গাঁটছড়া বাঁধেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও আমেরিকান পপস্টার নিক জোনাস। রীতিমতো ফেয়ারিটেল ওয়েডিং সম্পন্ন করে সুখের সংসার করতে পাড়ি দেন মার্কিন মুলুকে। পিগি চপস একজন ডাকসাইটে ফেমিনিস্ট এ কথা সবারই জানা সেই সূত্রেই বিবাহের পূর্বে তিনি জানিয়েছিলেন তিনি তার নামের পাশে স্বামীর পদবি বসাবেন না। তবে বিয়ের পর ঠিক উল্টোটাই করতে দেখা গিয়েছিল দেশি গার্লকে। নিজের পদবীর সাথে স্বামীর “জোনাস” পদবী জোরেন প্রিয়াঙ্কা।

View this post on Instagram

A post shared by Nick Jonas (@nickjonas)

তবে হঠাৎই ঘটলো ছন্দপতন! সোমবার দিন অভিনেত্রীর যাবতীয় সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট যথা ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম থেকে মুছে দিলেন “জোনাস” সারনেম। এখন তিনি সর্বত্র শুধুই প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। তবে অভিনেত্রীর এহেন কান্ড এর কারণে শুরু হয়েছে জল্পনা। স্বামী নিকের থেকে বয়সে 10 বছরের বড় হওয়ার দরুন তাদের বিয়ের সময় তাকে প্রচুর সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছিল। তবে সেই সকল সমালোচনায় কোনরকম পাত্তা না দিয়ে রীতিমত সুগৃহিনী ছিলেন তিনি।

প্রায়শই নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে একাউন্টে একে অপরের সাথে মজা-খুনসুটি, সময় কাটানো ও ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি শেয়ার করে থাকেন দুজনে। এমনকি চলতি মাসের শুরুতেই দিওয়ালি উপলক্ষে প্রিয়াঙ্কার এপার্টমেন্ট এর পুজোয় উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল নিক জোনাসকে। তবে কি এমন ঘটলো যে অভিনেত্রী স্বামীর পদবী মুছে দিলেন নিজের নাম থেকে? তবে কি সামনেই ঘটতে চলেছে বিচ্ছেদ? নাকি পূর্বের দেওয়া কথামতো শুধু “প্রিয়াঙ্কা চোপড়া” নামেই পরিচিত হতে চান তিনি!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *