Copa America : কেন জিততে পারল না আর্জেন্টিনা ? উত্তর খুঁজলেন মেসি

তিনি জাতীয় সংগীত গাইতে পারেন না। দলের সঙ্গে মিশতে পারেন না। দিয়েগো মারাদোনার মতো আবেগ দিয়ে খেলতে পারেন না আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে। বহুদিন ধরে এই অভিযোগে অভিযুক্ত লিওনেল মেসি। জবাব দেওয়ার মঞ্চ পেয়েছেন, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি। ৩৫ বছর বয়সে শেষ কোপা আমেরিকায় খেলতে নেমেছেন আধুনিক ফুটবলের রাজপুত্র। দেশকে ট্রফি দেওয়া ছাড়া আর কোনও লক্ষ্য নেই তাঁর।

কিন্তু সাধ আর সাধ্যের মধ্যে তফাৎ থাকে। এটাই আর্জেন্টিনার শেষ কয়েক বছরের সমস্যা। একাধিক ভাল ফুটবলার নিয়েও ট্রফি ভাড়ার শূন্য। তাই স্কালোনির দলের কাছে এবারের স্লোগান ‘ নাউ অর নেভার ‘ । কিন্তু প্রথমেই হোঁচট খেতে হল। সকাল দেখে যদি দিন কেমন যাবে ইঙ্গিত পাওয়া যায়, তাহলে বলতে হয় এই কোপা আমেরিকা তেও সম্ভবত খালি হাতেই ফিরতে হবে মেসিকে। পরে যদি আর্জেন্টিনা নিজেদের বদলে ফেলে আলাদা। এদিন যেমন প্রথম ম্যাচে নিজের ট্রেডমার্ক ফ্রি-কিক থেকে দলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন মেসি।

শুরুতে কী দুর্দান্তই না খেলছিল তখন আর্জেন্টিনা, আত্মবিশ্বাস টগবগ করছিল যেন। ওদিকে চিলি যেন একটু খোলসে ঢুকে ছিল। কিন্তু শেষমেশ ১-১ গোলে ড্র করে এক পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে চিলি। ওদিকে রক্ষণাত্মক ভুলের জন্য গোল খেয়ে মাথা চাপড়াচ্ছে আর্জেন্টিনা। ম্যাচ শেষেও নিজেদের কমতিগুলোই চোখে পড়েছে মেসির। বল নিয়ন্ত্রণে নিজেদের অক্ষমতার পাশাপাশি ড্রয়ের পেছনে আরও কিছু কারণ বের হয়ে এসেছে মেসির কাছে।

সাফ বললেন  ‘ম্যাচটা বেশ কঠিন ছিল। আমরা ভালোভাবে খেলতে পারিনি, বলের নিয়ন্ত্রণ ঠিক মতো রাখতে পারিনি, দ্রুতগতিতে খেলতে পারিনি। খেলাটা ছড়াতে পারেনি। ওই পেনাল্টিই ম্যাচ বদলে দিয়েছিল।’ কিন্তু তা সত্ত্বেও আশা হারাচ্ছেন না আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। সামনের দিকে দৃষ্টি তাঁর।

আগামী ম্যাচে এই ম্যাচের ভুলগুলো শুধরে আবারও এগিয়ে যেতে চান, ‘আমরা জিতে টুর্নামেন্ট শুরু করতে চেয়েছিলাম। আমাদের সামনে এখন উরুগুয়ে আছে, যে ম্যাচটাও যথেষ্ট কঠিন। কিন্তু আমাদের অবশ্যই পরের ম্যাচ নিয়ে চিন্তা করতে হবে এখন।’ আর্জেন্টিনার ইন্টার মিলানের স্ট্রাইকার মার্টিনেজ এদিন পুরো ফ্লপ। পরের ম্যাচে আগুয়েরো শুরু থেকে খেলেন কিনা সেটাই দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *