Best Sleep Position:সুস্থ থাকতে কোন দিক করে শোবেন? জেনে নিন কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

বিভিন্ন ব্যক্তির ঘুমানোর ধরন (Best Sleep Position) বিভিন্ন। কেউ পেটের ওপর ভর দিয়ে ঘুমায়, আবার কেউ পিঠের ওপর। কোনও কোনও ব্যক্তি ডান পাশ ফিরে ঘুমাতে (sleep) স্বচ্ছন্দ বোধ করে। আবার কারও কারও ক্ষেত্রে বাঁ পাশ ফিরে না-ঘুমালে ভালো ভাবে ঘুমই হয় না। তবে এই সমস্ত ধরণের মধ্যে একটি ঘুমানোর (sleep) ধরণ স্বাস্থ্যের পক্ষে উপযোগী। বিজ্ঞান মতে বাঁ দিক ফিরে ঘুমালে ব্যক্তি নানান শারীরিক উপকারীতা লাভ করতে পারে।

বাম দিক ফিরে ঘুমানোর উপকারীতা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক—

নাক ডাকা কম করে
আপনার নাসিকা গর্জনে কী বেডরুম কেঁপে ওঠে? সকালে ঘুম থেকে উঠেই সঙ্গীর নানান অভিযোগ শুনতে হয় আপনাকে? তা হলে আর দেরি না করে বাঁ পাশ ফিরে ঘুমানোর অভ্যাস করুন। পিঠের ওপর ভর দিয়ে ঘুমালে জোরে নাক ডাকার প্রবণতা থাকে। কারণ এ ভাবে ঘুমালে আপনার জিহ্বা, মুখ ও চোয়াল স্বস্তিতে থাকে। এর ফলে নাক ডাকার আওয়াজও তীব্র হয়।


হৃদয়ের পক্ষে উপকারী
বাম দিকে ফিরে ঘুমালে আপনার হৃদয়ের পরিশ্রম কিছুটা কম করতে পারবেন। কারণ এ ভাবে ঘুমালে হৃদয় মারফৎ সারা শরীরে খুব সহজে রক্ত চলাচল হতে পারবে।

অ্যাসিড রিফ্লাক্স কম করতে সাহায্য করে
ঘুমাতে যাওয়ার আগে যদি অত্যধিক পরিমাণে খাওয়া-দাওয়া করে থাকেন, তা হলে রাতে ঘুমানোর সময় অ্যাসিড রিফ্লাক্স হতে পারে। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে বাঁ দিকে ঘুমালে এই প্রবণতা কমানো যাবে।

গর্ভবতী মহিলারাও এর সুযোগ নিতে পারেন
গর্ভবতী মহিলাদের প্রায়ই বাঁ দিকে ফিরে ঘুমানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। কেন? কারণ ডান দিক ফিরে ঘুমালে জরায়ু লিভারের ওপর চাপ ফেলে (শরীরের ডান দিকে লিভার থাকে)। এ ছাড়াও বাঁ দিকে ঘুমালে পিঠের ওপর চাপ কম পড়ে। এমনকি কিডনি, জরায়ু ও ভ্রুণে রক্ত চলাচলও বৃদ্ধি পায়। তাই চিকিৎকরা গর্ভবতী মহিলাদের যত বেশি সম্ভব বাঁ দিকে ঘুমানোর পরামর্শ দেন।

লিম্ফ নোডকে সাহায্য করে
বাঁ দিকে ঘুমালে লিম্ফ নোডের কাজ সহজ হয়। এর ফলে শরীরের নানান তরল পদার্থ খুব শীঘ্র পরিশোধিত হতে পারে। কিন্তু এর বিপরীতে ডান দিকে ঘুমালে এই লিম্ফ নোডগুলির কার্যপ্রক্রিয়া ধীর গতির হয়ে পড়ে। নানান সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে যে, বাঁ দিকে ঘুমালে মস্তিষ্কের নানান বর্জ্য পদার্থকে শরীর প্রোসেস করতে পারে।

হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে পারে
সাধারণ মার্ধাকর্ষণ নিয়ম অনুযায়ী ডান দিকের তুলনায় বাঁ পাশ ফিরে ঘুমালে খাবার হজম প্রক্রিয়া সহজ হয়। বাঁ দিকে ঘুমালে বর্জ্য পদার্থ বৃহদন্ত্র থেকে সহজেই ডিসেন্ডিং কোলোনে পৌঁছতে পারে। অর্থাৎ, ঘুম থেকে ওঠার পরই বাওয়েল মুভমেন্টের সম্ভাবনা থাকবে। বাঁ দিকে ঘুমালে পেট ও প্যানক্রিয়াস স্বাভাবিক ভাবে ঝুলে থাকতে পারবে। যার ফলে হজমে প্যানক্রিয়াটিক উৎসেচক এবং অন্যান্য প্রক্রিয়া সুষ্ঠু ভাবে চালিত হবে।

পিঠের ব্যথা কমাতে পারে
যে ব্যক্তি তীব্র ও দীর্ঘস্থায়ী পিঠের ব্যথায় ভোগেন তাঁরা বাঁ দিকে ফিরে ঘুমালে উপকার পেতে পারেন। কারণ বাঁ দিকে ঘুমালে স্পাইনে চাপ কম পড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *