খোলা ব্লাউজে খেলছে যৌবন, একের পর এক অশ্লীল মন্তব্যে কান ঝালাপালা ‘মৌ’ বৌদির

হইচই প্লাটফর্মে মুক্তিপ্রাপ্ত “দুপুর ঠাকুরপো” সিরিজটি ঠাকুরপোদের রাতের পাশাপাশি দুপুরকেও রঙিন করে তুলেছে। “দুপুর ঠাকুরপো”র তিনটি সিজনে তিন-তিনজন নতুন বৌদির সঙ্গে আলাপ হয়ে গিয়েছে ঠাকুরপো-দের। “উমা বৌদি”, “ঝুমা বৌদি” এবং “ফুলওয়া বৌদি”; কেউ কারোর তুলনায় কোনও অংশেই কম নন। ঠাকুরপোদের হৃদপিন্ডের গতি বাড়িয়ে দিয়েছেন এই “হট এন্ড সেক্সি” আধুনিক বৌদিরা।

দীর্ঘদিন ধরেই ঠাকুরপোরা হইচই প্ল্যাটফর্মের নতুন বৌদির সঙ্গে আলাপ করার জন্য উদগ্রীব হয়ে অপেক্ষা করছিলেন। তাদের সেই অপেক্ষার অবসান হয়েছে। ঠাকুরপোদের হৃদস্পন্দন রুদ্ধ করতে এবার ওটিটি প্ল্যাটফর্মে আসতে চলেছেন “মৌ বৌদি”! দুপুর ঠাকুরপোদের জন্য “মৌ বৌদি” আসছেন তার “মৌচাক” এর পসরা নিয়ে! মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন অভিনেত্রী মনামী ঘোষ। “মৌ বৌদি”র চরিত্রের নিরিখে নিজেকে নিঙড়ে নেটিজেনদের সামনে তুলে ধরেছেন টলিউডের এই সুন্দরী।

সম্প্রতি “মৌচাক” এর ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে। ট্রেলার দেখে উত্তাল নেট দুনিয়া। দুপুর ঠাকুরপোরা নেটপাড়ার এই নতুন বৌদির সঙ্গে আলাপ করতে উৎসাহী। এদিকে “মৌ বৌদি”ও “মৌচাক” সিরিজের প্রচারে সম্প্রতি নেট দুনিয়ায় একটি পোস্ট করেছেন। মনামী সেখানে “মৌ বৌদি”র অবতারে ধরা দিয়ে বন্ধ দরজার তালার দিকে ইঙ্গিত করে ক্যাপশনে লিখেছেন “এই তালার চাবি কার কার কাছে?”

এখানেই শেষ নয়, কু-মন্তব্যকারীদের মধ্যে একজন পোষ্টের নিচে কমেন্ট বক্সে লিখেছেন, “চাবি তো আমার কাছে আছে, তুমি এসে পড়ো তালা খুলে দিই”! একজন লিখেছেন, “এ ভাবে সকলের সামনে আমাকে দিয়ে তালা খোলানোর ইশারা কেন করছেন, আমারও তো লজ্জা লাগে নাকি! প্রিয়জনদের ইশারা গোপনে চলে”। কেউ দাবি করছেন, চাবি ছাড়াই তালা খুলতে এক্সপার্ট তিনি!

কেউ কেউ আবার রবীন্দ্রনাথের গানের লাইনও লিখেছেন সেই ছবির নীচে। কেউ কেউ আবার বয়স নিয়েও ট্রোল করেছেন তাঁকে। কারও মতে, বয়স হলেও শরীরে ছাপ পড়ে না। তাই এক থালা ভাত খাওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন কেউ কেউ। যদিও কারও মন্তব্যের নীচে পাল্টা আক্রমণ করেননি অভিনেত্রী। অনেকেই আবার তীব্র প্রশংসা করেছেন তাঁর সাজ, এবং অভিনয়ের।

হইচই প্ল্যাটফর্মের এমন যৌন আবেদনে ভরপুর ওয়েব সিরিজের বিপক্ষেও রয়েছেন অনেকে। তারা মনে করছেন, উঠতি বয়সের ছেলেমেয়েদের যৌনতা নিয়ে ভুল পথে পরিচালিত করছে এমন ওয়েব সিরিজ। নেটিজেনদের একাংশের দাবি, ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের মাথায় “যৌনতার বিষ” ঢেলে দিচ্ছে এমন ওয়েব সিরিজ! নেটিজেনদের মধ্যে অনেকেই আবার মনামীর চেহারা নিয়ে খোটা দিয়ে তাকে “এক থালা ভাত” খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কেউ আবার রবীন্দ্রসঙ্গীতের পঙক্তি তুলে লিখেছেন, “ভেঙে মোর ঘরের চাবি নিয়ে যাবি কে আমারে”!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *