নদিয়ায় বেআইনি ভাবে সীমান্ত পার হতে গিয়ে গ্রেফতার এক তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ

অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম করার চেষ্টা করায় একজন ভারতীয় মহিলা ও সঙ্গে একজন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষকে নদিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে গ্রেফতার করল বিএসএফ। গ্রেফতার হওয়া মহিলা নদিয়া জেলার সর্দার পাড়া গ্রামের বাসিন্দা। নাম অলোকা দাস (বয়স ৪৮ বছর )। গ্রেফতার হওয়া তৃতীয় লিঙ্গের মানুষটি বাংলাদেশের টেঙ্গিয়াল গ্রামের বাসিন্দা। নাম বিন্দু বিবি (বয়স ৩৫ বছর)।

সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ১৪ জুন বাহিনীর গোয়েন্দা শাখা দু’’জনের সীমান্ত পেরিয়ে যাওয়ার খবর পান। খবর পেয়ে ৮২ ব্যাটেলিয়নের সীমা চৌকি মহাখোলার জওয়ানদের সতর্ক করে দেওয়া হয়। সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ জওয়ানরা দু’জনকে সীমান্তের দিকে আসতে দেখেন। প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে শনাক্ত হওয়ার পরে, জওয়ানরা তাঁদের থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করলে তাঁরা ভয় ঘাবড়ে যান। সন্দেহ হওয়ায় জওয়ানরা তাঁদের গ্রেফতার করে। সীমান্ত চৌকি মহাকোলায় নিয়ে আসার পরে বিন্দু বিবি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান, তিনি বাংলাদেশের বাসিন্দা। দু’বছর আগে ভারতে এসেছিলেন। তিনি শীলা নামে এক তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের সঙ্গে তেহট্টতে থাকতে শুরু করেন। শীলাই সীমান্ত পার করার ব্যবস্থা করেন। গ্রেফতার হওয়া অলোকাকে ২৫০০ টাকা দিয়ে বলেন, বিন্দুকে পার করে দিতে। কিন্তু সীমান্তে পার হওয়ার আগেই তাঁরা ধরা পড়ে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *