৯ মাস কাজ ছিল না নিয়া শর্মার হাতে! কীভাবে পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করেছিলেন?

এক হাজারো মে মেরি বেহেনা হ্যায়’ শো-টি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর বেশ কয়েক মাস পর্দার বাইরে ছিলেন অভিনেত্রী নিয়া শর্মা। তিনি বলেছিলেন যে এটি তাঁর জন্য একটি কঠিন সময় ছিল কারণ তিনি ‘মুম্বই-তে একা’ ছিলেন, কোনও বন্ধু ছিলনা এবং তাঁর কোনও উপার্জনও ছিল না।

কেরিয়ারের বড় সফলতা ‘এক হাজারো মে মেরি বেহেনা হ্যায়’ শো-এর মাধ্যমে পেয়েছিলেন অভিনেত্রী। ধারাবাহিকে মানভি চৌধুরী হিসেবে সমান্তরাল লিড চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। ২০১৩ সালে ধারাবাহিক অফ এয়ার হয়ে যায়। এরপর ২০১৪ সালে ‘জামাই রাজা’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেন তিনি। 

রেডিও হোস্ট সিদ্ধার্থ কাননকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিয়া বলেছিলেন, ‘যখন আমি ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম, তখন আমি নিজে থেকে যা করেছি। এক হাজারো মে মেরি বেহেনা হ্যায় করার সময় আমি একদম নবীশ ছিলাম। এই ধারাবহিক থেকেই পরিচিতি পেয়েছি। তারপর পুরো এক বছরের বিরতি ছিল’।

নিয়া আরও বলেন, তখন ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে অভিনেতাদের আয়ের উৎস ছিল না। যেমনটা এখন হয়েছে। তিনি বলেছিলেন যে এখন পর্যন্ত, তাঁর হাতে একটি ‘কংক্রিট প্রকল্প’ নেই। কিন্তু মিউজিক ভিডিয়ো, ব্র্যান্ড সহযোগিতা এবং অন্যান্য জিনিসের কাজ পেয়ে যান তিনি। কিন্তু ২০১৩ সালে তেমনটা ছিল না।

তিনি আরও বলেন, ‘এক হাজারো মে মেরি বেহেনা হ্যায় থেকে জামাই রাজা পর্যন্ত নয় মাসের লম্বা একটা বিরতি ছিল। একা ছিলাম মুম্বইতে। আমার কোন বন্ধু ছিল না কারণ আমি নতুন ছিলাম। আমি নিজেকে গুটিয়ে রাখতাম। আমি নিজের উপর কাজ করেছি, আমি বেলি ড্যান্স শিখতে শুরু করেছি। যেই নয় মাসটা কোনও কাজ ছাড়া কাটিয়েছি, উপার্জনের কোনও উৎস ছিল না.. আমার মনে হয় এমন একটা পরিস্থিতি, যেইটা দ্বিতীয়বার মুখোমুখি হতে চাইনা আমি’। 

সম্প্রতি বিগ বস ওটিটি -তে অতিথি হিসেবে দেখা গেছে নিয়া শর্মাকে। ‘দো ঘুট’ নামে একটি নতুন মিউজিক ভিডিয়োতে দেখা গেছে তাঁকে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *