জুড়ে যাচ্ছে OnePlus ও Oppo, উন্নত পরিষেবা ও ডিভাইস অফার করার প্রতিশ্রুতি

স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক হিসেবে OnePlus এবং Oppo ব্র্যান্ডের যথেষ্টই জনপ্রিয়। অনেকে হয়তো জানেন না যে উক্ত সংস্থাদ্বয়ের মালিকানার অধিকারী চীনা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান বিবিকে ইলেক্ট্রনিক্স (BBK Electronics)। শুধু তাই নয়, এই বহুজাতিকের কাছে Realme, Vivo এবং iQoo -এর মতো সংস্থার মালিকানাও রয়েছে। কিন্তু আমাদের প্রতিবেদনে আমরা শুধু দুই সহোদরা ব্র্যান্ড ওয়ানপ্লাস (OnePlus) এবং অপ্পোর (Oppo) বিষয়েই কথা বলবো। গত বছর থেকেই এই সংস্থাদ্বয় পরস্পরের সাথে আরো নিবিড়ভাবে সংযুক্ত হয়েছে। আলাদা আলাদা ব্র্যান্ড নামে উপলব্ধ থাকলেও, অন্যান্য সুযোগ-সুবিধার জন্য শুরু হয়েছে মিলিত হওয়ার প্রক্রিয়া। পরস্পরের সহযোগী হিসেবে নিজেদের ব্র্যান্ড মূল্যকে আরো উর্ধ্বে তুলে ধরতেই এই সিদ্ধান্ত বলে সংস্থা দুটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ওয়ানপ্লাসের (OnePlus) সিইও পিট্ লাউ (Pete Lau) সম্প্রতি একটি ফোরাম পোস্টের জানিয়েছেন যে সংযুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া শুরুর সাথে সাথেই ওয়ানপ্লাস একটি নতুন যাত্রা আরম্ভ করেছে। এর ফলে তাদের গ্রাহক পরিষেবা পূর্বের থেকে অধিক পরিমাণে উন্নত এবং মসৃণ হবে বলে পিট্ দাবী করেছেন। তাছাড়া ব্যবসার ক্ষেত্রে তারা যে একটি গুরুত্বপূর্ণ বাঁকবদলের সম্মুখীন, নিজের পোস্টে পিট্ সেটাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন। ফলে ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেদের আরো উপরে নিয়ে যাওয়ার জন্য দলগতভাবে কাজ করার প্রয়োজন আছে বলেও তিনি মনে করেন।

আসলে ২০২০ সাল থেকেই অপ্পো এবং ওয়ানপ্লাস সংস্থা দুটি নিজেদের মধ্যে ব্যাপক সহযোগিতার বন্ধন সৃষ্টি করেছে। এই লক্ষ্যে এতদিন ছোট ছোট অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এবার সেগুলিকেই আরো বৃহত্তর ক্ষেত্রে প্রয়োগের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। ওয়ানপ্লাস সিইও’র মন্তব্য – “ওয়ানপ্লাস এবং অপ্পো সংস্থাদ্বয়ের পণ্য বিপণন এবং অন্যান্য নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে গত বছর থেকেই আমি কিছু অতিরিক্ত দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। এরপর থেকেই আমরা অপ্পোর (Oppo) সঙ্গে যৌথ কর্মের সংখ্যা বৃদ্ধি করেছি। প্রতিটি সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে আমাদের যাবতীয় প্রচেষ্টাকে সার্থক করে তোলার জন্যেই আমাদের এই যৌথ প্রচেষ্টা।”

উল্লেখ্য, গত বছরের সেপ্টেম্বরেই ওয়ানপ্লাস কর্তা পিট্ লাউ অপ্পোর জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি হিসেবে কার্যভার গ্রহণ করেছেন। ২০১৩ সালে অপ্পোর সহ-সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি নেওয়ার পর এটি তার পুনরাগমন যা যথেষ্ট ইঙ্গিতবহ।

সংযুক্ত উদ্যোগের ফলে ভবিষ্যতে আলাদা আলাদা ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ানপ্লাস এবং অপ্পোর জনপ্রিয়তা কতটা বজায় থাকবে সে সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে পিট্ বলেন – ” প্রকৃতপক্ষে আমরা স্বাধীন প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করবো। যেমন ওয়ানপ্লাস ডিভাইসের অধিকারীরা ঠিক আগের মতোই সংস্থার চ্যানেল ব্যবহার করে নিজেদের ফিডব্যাক বা প্রতিক্রিয়া জানাতে পারবেন। এভাবে সরাসরি আমরা গ্রাহকের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করবো। কিন্তু আরো উন্নত পরিষেবা এবং প্রোডাক্ট সরবরাহের জন্য আমরা যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে আগ্রহী যা গ্রাহকদের খুশি করবে বলেই আমার বিশ্বাস।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *