COVID-19: করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গিয়েছে ব্রিটেনে, আশঙ্কা টিকা বিশেষজ্ঞের

ভারতে সন্ধান মেলা করোনার (Coronavirus) ডেল্টা (Delta) স্ট্রেনের দাপটে ব্রিটেনে (UK) শুরু হয়ে গিয়েছে সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ। এমনই আশঙ্কা করছেন সেদেশের শীর্ষস্থানীয় এক টিকা বিশেষজ্ঞ। এই মুহূর্তে করোনা টিকা ও ডেল্টা স্ট্রেনের মধ্যে ‘রেস’ চলছে, এমনটাই জানাচ্ছেন তিনি।

ব্রিটেনের টিকাকরণ সংক্রান্ত কমিটি JCVI-এর পরামর্শদাতা অধ্যাপক অ্যাডাম ফিন বিবিসিকে জানিয়েছেন, ‘‘আমরা খানিকটা আশাবাদী হতেই পারি যে এটা খুব দ্রুত ছড়াতে শুরু করবে না। কিন্তু এটা বাড়তে না শুরু করলেও তৃতীয় ঢেউ যে শুরু হয়ে গিয়েছে তা বলাই যায়। আর এই দৌড়টা এখন হয়ে দাঁড়িয়েছে ডেল্টা স্ট্রেন ও টিকাকরণের মধ্যে। যত দ্রুত আমরা সব বয়স্ক ব্যক্তিদের দু’টি ডোজ দিয়ে দিতে পারব, তত কমবে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি রোগীর সংখ্যা।’’

গত মাসেই ভারতে সন্ধান মেলা করোনা স্ট্রেন B.1.617.2 তথা ‘ডেল্টা’ স্ট্রেনকে নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO। কিন্তু এবার সেই স্ট্রেন ভয়াবহ ভাবে ছড়াতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে ৮০টি দেশে ছড়িয়েছে সেই স্ট্রেন। এবার সেই স্ট্রেনের প্রকোপেই তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়ে গিয়েছে ব্রিটেনে।

কিন্তু যথেষ্ট পরিমাণে টিকাকরণ কি হয়ে গিয়েছে সেদেশে? এবিষয়ে কতটা আত্মবিশ্বাসী ব্রিটেন? এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অধ্যাপক ফিন জানাচ্ছেন, ‘‘না, আমি মোটেই আত্মবিশ্বাসী নই। কিন্তু আশার রেখা অবশ্যই রয়েছে। পরিসংখ্যান দেখাচ্ছে সংক্রমণের হার বাড়ছে। কিন্তু গত সপ্তাহেও আমি যতটা ভয় পাচ্ছিলাম, সেই হারে মোটেই সংক্রমণ ছড়াচ্ছে না। তবে দৌড়টা শুরু হয়ে গিয়েছে।’’

ইউরোপের বহু দেশেই করোনা সংক্রমণ অনেকটাই কমে গিয়েছিল। তার অন্যতম ব্রিটেন। কিন্তু বর্তমান পরিসংখ্যান দেখাচ্ছে গত শুক্রবার ব্রিটেনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ৪৭৬ জন। আর এর জন্য দায়ী করা হচ্ছে ডেল্টা স্ট্রেনকেই।

ইংল্যান্ডের স্বাস্থ্য দপ্তরের দাবি, যাঁরা টিকার একটি ডোজ নিয়েছেন তাঁদের করোনা আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভরতি হওয়ার সম্ভাবনা ৭৫ শতাংশ কমে যায়। এমনকী ডেল্টা স্ট্রেনে আক্রান্ত হলেও। আর দু’টি ডোজ নিয়ে নিলে সেই সম্ভাবনা পৌঁছে যায় ৯০ শতাংশে। আপাতত এই পরিসংখ্যানকে সঙ্গে নিয়েই করোনার তৃতীয় ঢেউকে আটকাতে লড়াই করতে চাইছে ব্রিটেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *