খোলামেলা ব্লাউজে উন্মুক্ত যৌবন, বাঁধাকপি পকোড়া ডিম কষা রেঁধে ভাইরাল যুবতী

বাঙালির হেঁসেলে নিরামিষ রান্নার মেনুতে আলুপোস্ত একটি অত্যন্ত সাধারণ অথচ লোভনীয় পদ। আর সেই সাধারণ রান্না রেঁধেই রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়ার লাইমলাইট কেড়ে নিয়েছেন এক বঙ্গকন্যা। নাম তার রিম্পি। ইউটিউবে (YouTube) নিজের একটি চ্যানেলও খুলে ফেলেছেন তিনি। চ্যানেল খোলার পর এ পর্যন্ত সর্বসাকুল্যে ৭টি রান্নার (Cooking Video) ভিডিও আপলোড করেছেন তিনি। আর এরই মধ্যে তার ভিউয়ার্সের সংখ্যাটা ৬ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে!

ভাবছেন রিম্পি খুব ভালো রান্না করেন বলেই তার রান্নার ভিডিও দেখার জন্য হামলে পড়ছেন দর্শক? তাহলে কিন্তু একেবারেই ভুল ভাবছেন আপনি। কারণ রাঁধুনির থেকে রান্না শেখার জন্য নয়, ইউটিউবের সুপার হট রাঁধুনিকে দেখার প্রতিই বেশি আগ্রহ রয়েছে দর্শকের! রিম্পির রান্নার কৌশলের প্রতি দর্শকের যত না আগ্রহ রয়েছে, তার থেকেও বেশি আগ্রহ তাদের রয়েছে রাঁধুনির ডিপ কাটের ব্লাউজের উপর! যার ফাঁক গলে তার শরীরের গোপন ভাঁজ স্পষ্ট ধরা পড়ে।

আলুপোস্ত, বেগুন ভর্তা, টমেটো ভর্তা, ডিম কষা, ডিমের কারি, টমেটোর চাটনি আর মিষ্টি কুমড়োর ভর্তা, বাঙালি ঘরের প্রচলিত এই ৭টি রান্নার ভিডিও আপলোড করেই নেট মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছেন ওই যুবতী। রান্না শেখানোর জন্য ইউটিউবে Unique Village Food নামের চ্যানেল খুলে ফেলেছেন তিনি। চ্যানেলের নামে গ্রামের ছোঁয়া থাকলেও রাধুনী কিন্তু সম্পূর্ণভাবে আধুনিকা! তা তার পোশাক থেকেই স্পষ্ট। খোলা আকাশে মাটির উপরে গ্যাস সিলিন্ডার বসিয়ে রান্নার সমস্ত উপকরণ নিয়ে রান্না করেন এই সুন্দরী।

ডিপ কাটের স্লিভলেস ব্লাউজ এবং শাড়ি পড়ে নেটিজেনদের রান্না শেখাতে আসেন রিম্পি। প্রতিটি ভিডিওতে তার ব্লাউজের ডিজাইনে নেটিজেনের নজর আটকাতে বাধ্য। আর এই বোল্ড অবতারেই হাতা-খুন্তি নিয়ে রান্না শেখাতে এসে প্রতিবার নেট মাধ্যমের উষ্ণতার পারদ চড়িয়ে যান এই আধুনিকা রাঁধুনি। যদিও ভিউয়ার্সের সংখ্যাটা লক্ষের সীমানা পেরোলেও এই মুহুর্তের রিম্পির সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যাটা মাত্র সাড়ে ৫৭ হাজারেই আটকে রয়েছে।

মাত্র ৩ সপ্তাহ আগে রিম্পি যে আলু পোস্ত রান্নার ভিডিওটি শেয়ার করেছেন তা ইতিমধ্যেই ৬ লক্ষ ভিউয়ের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে। তার আগে দর্শকদের যত্ন নিয়ে টমেটোর চাটনি রান্না করা শিখিয়েছিলেন তিনি। যা প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ দেখে নিয়েছেন। রিম্পি রান্নার একেকটি ভিডিও পোস্ট করলেই লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের বন্যা বয়ে যায় তাতে। আবার তাকে কেন্দ্র করে ট্রোল এবং মিমের বন্যাও বয়ে যায় নেট মাধ্যমে।

উল্লেখ্য, ‘ভেগানস অফ বেঙ্গল’- ফেসবুক পেজ থেকেও রিম্পির রান্নার ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে! বলে রাখি, রিম্পি নিজেও একজন নিরামিষভোজী। তাই তিনি নেট মাধ্যমে নিরামিষ রান্নার রেসিপি ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। তার এই উদ্যোগকে সমর্থন জানাচ্ছে ‘ভেগানস অফ বেঙ্গল’। রিম্পির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে গ্রুপের তরফ থেকে লেখা হয়েছে, “এটা ভাবলেই খারাপ লাগে যে বাংলায় কেবল আমিষ রান্নার ভিডিওই বেশি দেখেন দর্শক। কিন্তু মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই বাংলার এই ক্লাসিক ভেগান ডিশ আলু পোস্ত রান্নার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে!”

গ্রুপের তরফ থেকে রিম্পিকে ধন্যবাদ জানিয়ে আরও লেখা হয়েছে, “এই প্রশংসা সেইসব নিরামিষভোজীদেরই প্রাপ্য যারা নিরামিষ রান্নার রেসিপি সরিয়ে দেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।” ওই ফেসবুক গ্রুপে রিম্পির রান্নার ভিডিও নিয়ে এই পোস্ট শেয়ার হতেই অবশ্য নেটিজেনদের তরফ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার মিলেছে। নেটিজেনরা মন্তব্য বক্সে জানিয়েছেন, এরকম হলে তারা ভেগান হতে রাজি। অনেকে আবার মন্তব্য করছেন, ‘এ তো স্বর্গ, কোন দিকে তাকাব!’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *