‘কামসূত্রের স্রষ্টা দেশে পর্ন নিষিদ্ধ কেন?’, নীলছবি বিতর্কে প্রশ্ন তুললেন সালমানের প্রাক্তন প্রেমিকা

বিগত প্রায় ১ সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে পর্ন (Porn) কান্ডকে কেন্দ্র করে সরগরম হয়ে রয়েছে বলিউড (Bollywood)। এই অশ্লীল ছবি নিয়ে ব্যবসার কর্ণধার রাজ কুন্দ্রাকে (Raj Kundra) নিজেদের হেফাজতে নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে মুম্বাই পুলিশ। রাজের বিরুদ্ধে উঠে আসছে একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য। ছড়াচ্ছে বহু গুঞ্জন এবং রটনা। বলিউডের বহু মডেল-অভিনেত্রীই এই বিষয়ে রাজের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। তবে রাজের পক্ষ নিয়ে কথা বলার মতো মুখেরও কিন্তু খুব একটা অভাব নেই!

রাখি সাওয়ান্তের পর এবার পর্ন কান্ড নিয়ে মুখ খুললেন বলিউডের প্রখ্যাত অভিনেত্রী তথা সালমান খানের (Salman Khan) প্রাক্তন প্রেমিকা সোমি আলি (Somi Ali)। এ প্রসঙ্গে নিজের মতামত তুলে ধরতে গিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন সোমি। যে দেশ কামসূত্রের জন্ম দিয়েছে, সেই দেশে পর্ন নিষিদ্ধ হবে কেন? প্রশ্ন তুলেছেন সোমি। তিনি মনে করেন, “যৌনতা বা পর্ন নিয়ে যতই ঢাক ঢাক গুড় গুড় হবে ততই তা নিয়ে আগ্রহ বাড়বে।”

এ প্রসঙ্গে নিজের বক্তব্য তুলে ধরতে গিয়ে তিনি আরও বলেছেন, “যারা পর্নকে পেশা হিসেবে বেছে নেন তাদের ব‍্যক্তিগতভাবে আমি বিচার করি না, যতক্ষণ না এতে কারোর ক্ষতি হচ্ছে বা মানুষ পাচার হচ্ছে। যারা পর্ন দেখেন বা যারা এটাকে পেশা বানিয়েছেন তাদের কারোর প্রতিই আমার কোনো সমস‍্যা নেই।” একই সঙ্গে তিনি মনে করেন ভারতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে ‘যৌনতার শিক্ষা’ দেওয়া উচিত।

সালমানের প্রাক্তন প্রেমিকা আরও বলেছেন, “আমার এটাকে শৈল্পিক অগ্রগতি বলে মনে হয়। প্রেমে ঘনিষ্ঠতা না থাকলে তার কোনো মানে নেই। তাই চুম্বন বা অন্তরঙ্গ দৃশ‍্যের স্বাভাবিকতা গ্রহণ করা উচিত। আমরা যত কোনো বিষয় নিয়ে স্বাভাবিক হব ততই কম মানুষ নিজের পছন্দ অপছন্দকে লুকোতে শিখবে, যেমন পর্ন দেখা।” ঠিক এই কারণেই ওয়েব সিরিজের প্রতি দর্শকদের আগ্রহ বাড়ছে বলে মনে করেন তিনি। আর ওয়েব সিরিজের প্রতি দর্শকের আগ্রহ যত বাড়ছে, ততই বোল্ড দৃশ্যের পরিমাণ বাড়ছে। যদিও তার উপর সেন্সর বোর্ডের কাঁচির দৌরাত্ম্য রয়েইছে।

উল্লেখ্য, সদ্য রাজের হয়ে মুখ খুলেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্ত। বলিউডের যে সকল মডেল-অভিনেত্রীরা রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন, তাদের কটাক্ষ করে রাখি একটি সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বলেন, “মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে কেউ পর্নোগ্রাফি শুট করতে বাধ‍্য করে না। তাই কাউকে দোষ দেওয়া উচিত না। যৌনতা বেচলে মানুষ যৌনতা কিনবে। প্রতিভা বেচলে মানুষ প্রতিভা কিনবে। এই ধরনের চরিত্রে অভিনয় না করলে কেউ জোর করবে না শুট করতে। এটা একটা স্বাধীন দেশ।”

রাখি মনে করেন শিল্পা শেট্টির স্বামী হওয়ার কারণেই রাজ কুন্দ্রাকে নিশানা করা হচ্ছে। সেলিব্রিটির স্বামী হওয়ার কারণেই রাজ বিপাকে পড়েছেন বলে মনে করেন রাখি। এবার পাকিস্তানি সুন্দরী সোমি আলিও এই প্রসঙ্গে কার্যত পরোক্ষে রাজের পক্ষেই সওয়াল করলেন। উল্লেখ্য, পাকিস্তানের এই সুন্দরী একমাত্র সালমানকে বিয়ে করবেন বলেই নিজের দেশ ছেড়ে ভারতে চলে এসেছিলেন। ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’তে সালমানকে দেখেই নাকি প্রেমে পড়ে যান তিনি।

সালমান খানকে বিয়ে করার স্বপ্ন নিয়ে মাত্র ১৬ বছর বয়সেই দেশ ছেড়েছিলেন সোমি। এ সম্পর্কে পরে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, “এক রাতে আমি ঘুমের মধ‍্যে স্বপ্ন দেখি সলমনের বিয়ে হয়ে যাচ্ছে। ঘুম ভেঙে আমি এতটাই ব‍্যাকুল হয়ে পড়ি যে পরদিনই ব‍্যাগ গুছিয়ে সোজা ভারতে চলে আসি নিজের দেশ ছেড়ে।” তার সেই স্বপ্ন অবশ্য অর্ধেক পূরণ হয়েছিল। সালমানের সঙ্গে ৮ বছর সম্পর্কে ছিলেন তিনি। পরে অবশ্য তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। সোমি আলি এখন ‘নো মোর টিয়ারস’ নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে জড়িত রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *